শুক্রবার, ১৫ জানুয়ারী, ২০২১

মূর্খ সংবাদ ~ আর্য তীর্থ

লোকটা হঠাৎ ঘরের দেওয়ালে 
আপনমনেই নিজের খেয়ালে
গোটা গোটা করে লিখে দিলো সোজা, মন্ত্রীমশাই মূর্খ!
কেন যে লিখলো, কে জানে বাবা, 
সে দেশে করেনা প্র্যাকটিস ভাবা,
বোকা হাবা সেজে থাবাকে এড়ালে তবে জোটে কিছু সুখ গো!
এ লোকটা মোটে দ্রোহীটোহি না, 
জীবন কাটায় রাজনীতি বিনা,
ছা পোষা বাকি লোকের মতনই ঝঞ্ঝাট চলে এড়িয়ে,
তবু দুম করে চারিদিক দেখে, 
ফেটে পড়ে আজ ওই কথা লেখে
অজানা এখনো কিসে গেলো তার ধৈর্য্যের বাঁধ পেরিয়ে।
বন্ধু এবং পড়শীরা এসে, 
বলে ও পাগল, ফেঁসে যাবি শেষে
কে কোথার থেকে উঁকি দিয়ে নেবে দেওয়াল-লিখন দেখে,
কেন বা ডাকিস বিপদ অযথা, 
লক্ষ্মীটি সোনা, শোন ভালো কথা,
ঘষে ঘষে ফেল মুছে ওই লেখা এখনই দেওয়াল থেকে।
মানুষটা হেসে বলে আরে ধুর, 
পেয়াদা আসবে কেন এতদূর,
বাইরে কোথাও বলতে যাইনি , লিখেছি নিজের ঘরে,
গালি তো দেইনি কোনো অশ্রাব্য , 
অথবা বলিনি কাগজে ছাপবো
লোক আমি নই এত কেউকেটা খবর রাখবে চরে।

কিন্তু লোকটা জানতো না ঠিক,
 সেদেশে নজরে সব নাগরিক,
পারলে মগজে ডুবুরীর মতো সেঁধোয় পেয়াদা যেন, 
পরদিন যেই গিয়েছে আপিস,
 দেখে বেচারির চাকরি হাপিস,
ম্যানেজার তাকে খোলসা করে না কাজ চলে গেলো কেন।
অবশেষে এক বন্ধু পুরোনো, 
ছিটকিনি এঁটে করে দোনোমোনো,
ফিসফিস করে বলে দিলো কানে কী তার ক্রাইমখানা,
মন্ত্রীর নামে দিয়েছে সে গালি, 
রাষ্ট্রের চোখে কড়কড়ে বালি,
এসব কথা যে ভাবাও বারণ , সকলের সেটা জানা। 

বলতে বলতে পুলিশের গাড়ি, 
হুটার বাজিয়ে এলো তাড়াতাড়ি,
থানাতে দারোগা ধমকে বলেন সাহস তো তোর নয় কম 
বলেছিস নাকি মন্ত্রী মূর্খ, 
পেছনে পড়বে এখন হুড়কো,
উনি চটে গেলে বাঁচা মুশকিল , যমকে বরং ভয় কম।
লোকটা বললো, আরে ও সাহেব, 
আমি মন্ত্রীর খাস মোসায়েব,
সকাল বিকেল তাঁকেই  স্মরণ করে তবে জল খাই 
আপনাকে খুলে বলি সোজাসুজি,
 খামোখা হয়েছে ভুল বোঝাবুঝি,
উদোর পিণ্ডি বুধোর ঘাড়ে যে চেপে গেছে পুরোটাই।
 ওই যে মন্ত্রী প্রতিবেশী দেশে,
 শয়তান ব্যাটা মানুষের বেশে,
আমি তো বলেছি ওই হতভাগা হস্তীমূর্খ আস্ত,
এদেশে মহান মন্ত্রীমশাই, 
খামোখা কেন বা গালি দেবো ছাই,
আহা ফুলেফেঁপে বেড়ে গিয়ে তাঁর  ভালো হোক আরো স্বাস্থ্য।

দারোগাটি করে প্রবল ভ্রুকুটি, 
কঠিন হস্তে টিপে ধরে টুঁটি,
লোকটাকে বলে ব্যাটা করছিস আমার সঙ্গে চালাকি
ফালতু না দিয়ে ভাংচি ভড়ং , 
সত্যিটা বলে ফেল না বরং,
থার্ড ডিগ্রীটা শুরু করে দেবো যদি দিতে চাস ফাঁকি।

এতদিন ধরে চড়াই লোককে, 
পারবি না দিতে ধুলো এ চক্ষে,
কাদের দেশের মন্ত্রী মূর্খ, আমি তা জানিনা নাকি?

আর্যতীর্থ

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন